সোমবার, মে ১০, ২০২১

শিরোনাম

  ভারতের ‘উপহার’ হিসাবে ২০ লাখ করোনা টিকা আসছে বুধবার     ঢাকা থেকে প্রকাশিত জনপ্রিয় দৈনিক কালের কথা পত্রিকার জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আগ্রহী প্রার্থীরা ০১৭০১৭০৩৪৪২ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

জিয়ার বীর উত্তম খেতাব প্রত্যাহারের দাবির সঙ্গে একমত নানক


জিয়ার বীর উত্তম খেতাব প্রত্যাহারের দাবির সঙ্গে একমত নানক

প্রকাশিতঃ সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০২১   পঠিতঃ 42525


নিজস্ব প্রতিবেদক:

মুক্তিযোদ্ধা হলেও নানা অপরাধের অপরাধী হিসাবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের বীর উত্তম রাষ্ট্রীয় খেতাব প্রত্যাহার করার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬ সালে বিএনপি কর্তৃক একতরফা প্রহসনের নির্বাচনের প্রতিবাদে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণ আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। মুক্তিযুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে স্বাধীনতার পর জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)। একই সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি শরিফুল হক ডালিম, নূর চৌধুরী, রাশেদ চৌধুরী ও মোসলেহ উদ্দিনের রাষ্ট্রীয় খেতাবও বাতিলের সুপারিশ করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার জামুকার ৭২তম সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয়। জামুকার এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিএনপি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে, পাশাপাশি জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিল করা হলে সরকার পতনের আন্দোলনের কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। জাহাঙ্গীর কবির নানক জামুকার এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বিএনপির প্রতি পাল্টা চ্যালেঞ্জ ও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

তিনি বলেন, জামুকা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, মুক্তিযোদ্ধাদের কেন্দ্রীয় সংগঠন সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, জিয়াউর রহমানের ওই খেতাব প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে। অমনি বিএনপির গায়ে লেগে গেছে? কেন প্রত্যাহার করে নিতে চায়? জিয়াউর রহমানকে কি ধোঁয়া তুলসিপাতা বানাতে চান? এই জিয়াউর রহমানের খেতাব বাতিল করার কতকগুলো যুক্তিযুক্ত কারণ রয়েছে বলে দাবি করেন নানক।

তিনি আরো বলেন, ‘বাঙালি জাতির হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা শেখ মুজিবের হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে খুনি মোশতাক শাহরিয়ার নূরদের সঙ্গে এই জিয়াউর রহমানও জড়িত। এই জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের পুরস্কৃত করেছিল। বিভিন্ন দূতাবাসে চাকরি দিয়েছে, পদোন্নতি দিয়েছে সেই কারণেই জিয়াউর রহমানের খেতাব প্রত্যাহার করা উচিত।’ জিয়াউর রহমানের উপাধি বাতিল করার দাবি করে নানক আরও বলেন, জিয়াউর রহমান এই দেশে গোলাম আযম, শাহ আজিজসহ স্বাধীনতা বিরোধীদেরকে পুনর্বাসিত করেছিল। জিয়াউর রহমানের খেতাব প্রত্যাহার করে নেওয়া উচিত, এই কারণেই। জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধের মধ্যে অর্জিত আমাদের জননী-জন্মভূমিকে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে একটি সাম্প্রদায়িক দেশে প্রতিষ্ঠা করে দেশকে দ্বিধাবিভক্ত করার ষড়যন্ত্র করেছিল। সেই কারণে বাতিল হওয়া উচিত।’

খেতাব বাতিলে বিএনপির বক্তব্যের জবাবে নানক আরও বলেন, ‘এখন তারা বলছে, জিয়া মুক্তিযোদ্ধা ছিল! এখন কয় কি বঙ্গবন্ধুর দেওয়া খেতাব, সেই খেতাব কেন বাতিল হবে? আমি বলি, বঙ্গবন্ধুর দেওয়া খেতাব, বঙ্গবন্ধুকে কেন হত্যা করবে জিয়াউর রহমান? কেন হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকবে এই প্রশ্নের উত্তর জবাব দেন?’ জাতির পিতার খুনীদের যাতে বিচার এই বাংলাদেশে না হয়, তার জন্য জিয়াইর রহমান বাংলাদেশে কেন ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ জারি করেছিল? উল্লেখ করে বিএনপির উদ্দেশে প্রশ্ন তোলেন নানক। তিনি বলেন, ‘এই কারণে, এতো অপরাধের অপরাধের কারণেই জিয়াউর রহমানের তার খেতাব যেমনি বঙ্গবন্ধু দিয়েছিল, তেমনিভাবে তার এতো অপরাধের কারণে তার খেতাব প্রত্যাহার করা হবেই হবে।’

বিএনপিকে নিজেদের চেহারা নিজেরা আয়নায় দেখার আহ্বান জানিয়ে জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘মতিউর রহমান নিজামী, আব্দুল আলীম, সালাহউদ্দিন কাদের চৌধুরী- এদেরকে মন্ত্রী বানিয়েছে খালেদা জিয়া, এরশাদ জিয়াউর রহমানরা। এই দেশকে তারা ধ্বংস করে দিয়েছিল। এই দেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করে দিয়েছিল, কাজেই তাদের সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে। ওরা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত, ওরা ষড়যন্ত্রকারী। ওদের ষড়যন্ত্রের বিষদাঁত ভেঙে দিতে হবে।’

এ সময় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিপু মনি, তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোর্শেদ কামালসহ মহানগর নেতারা।

 

 

কালেরকথা/বিডি

মন্তব্য করুন

Logo

সম্পাদক: মাসুম বিল্লাহ কাওছারী

সিডরো মিডিয়া গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে রিনা দাশ কর্তৃক উত্তরা রেসিডেন্সিয়াল এলাকা ঢাকা থেকে প্রকাশিত

 01701703442   ||   info@dailykalerkotha.com