মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৪, ২০২০

শিরোনাম

  ঢাকা থেকে প্রকাশিত জনপ্রিয় দৈনিক কালের কথা পত্রিকার জন্য বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা,উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রতিনিধি নিয়োগ করা হচ্ছে। আগ্রহী প্রার্থীরা ০১৭০১৭০৩৪৪২ নাম্বারে যোগাযোগ করুন।  

২০১৮ সালের হজ প্যাকেজ খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন


২০১৮ সালের হজ প্যাকেজ খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ২৭, ২০১৮   পঠিতঃ 234738


কবির আল-মামুন:

২০১৮ সালের হজে গমনেচ্ছুদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে ‘জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতি-২০১৮’ এবং ‘হজ প্যাকেজ-২০১৮’র খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।  প্যাকেজ অনুসারে, সরকারি ব্যবস্থাপনায় এ মৌসুমে হজে যাবে ৭ হাজার ১৯৮ জন। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় যাবে ১ লাখ ২০ হাজার জন, এর বেশি হবে না।  সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্যাকেজ-১ এর আওতায় যেতে খরচ হবে ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯২৯ টাকা, প্যাকেজ-২ এর আওতায় খরচ হবে ৩ লাখ ৩১ হাজার ৩৫৯ টাকা।  এ দুটি প্যাকেজের কম খরচে কাউকে হজে নিতে পারবেন না বেসরকারি এজেন্টরা।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২১ আগস্ট হজ পালিত হবে।  এবার প্লেন ভাড়া বেড়েছে ১৪ হাজার টাকা।  গতবার প্লেন ভাড়া ছিল ১ লাখ ২৪ হাজার ৭২১ টাকা। এ মৌসুমে প্লেন ভাড়া ধরা হয়েছে ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৫১ টাকা।

সচিব জানান, এ বছর প্রত্যেক হজযাত্রী নিজের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র বহনের জন্য ট্রলিব্যাগ নিজেরাই কিনবেন। আগে এজেন্সিগুলো ট্রলি কিনে দিত। কিন্তু এক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় নিয়ম পরিবর্তন করা হয়েছে। এখন হজযাত্রীরা নিজের পছন্দ অনুযায়ী ট্রলি কিনতে পারবেন। এ বছরের নীতিমালা অনুযায়ী, হজযাত্রীদের বাসস্থান মক্কা থেকে দুই কিলোমিটারের বেশি হলে এজেন্সিকেই গাড়ি দিতে হবে।  ২০১৫, ’১৬ ও ’১৭ সালে যারা হজ করেছেন এবং যারা হজে যাওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন, তারা আবার যেতে চাইলে অতিরিক্ত ২১ শত রিয়াল দিতে হবে।

 বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় নিবন্ধন ফি এবার সর্বনিম্ন ১ লাখ ৬৮ হাজার ২৭৭ টাকা খরচ নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার, যা গত বছর ছিল এক লাখ ৫৬ হাজার ৫৩৭ টাকা।  মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সুবিধার ধরণ অনুযায়ী বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যেতে টাকার অংকে হেরফের হবে।  জাতীয় হজ ও ওমরাহ নীতিতে এবার কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে জানিয়ে সচিব বলেন, ‘প্রাক-নিবন্ধন করতে এনআইডি থাকার বাধ্যবাধকতা থাকলেও প্রবাসীরা পাসপোর্টের মাধ্যমে প্রাক-নিবন্ধন করতে পারবেন।’ প্রাক-নিবন্ধন করেও যারা চূড়ান্ত নিবন্ধন করবেন না তাদের নিবন্ধনের মেয়াদ আরও একবছর থাকবে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পর পর দুই বছর চূড়ান্ত নিবন্ধন না করলে ধরে নেওয়া হবে তিনি হজে যেতে আগ্রহী না। একটি হজ এজেন্সি কমপক্ষে ১৫০ জন ও সর্বোচ্চ তিনশ’জন হজযাত্রী প্রেরণ করতে পারবে। একটি বিমানে ৩টি হজ্ব এজেন্সির হজযাত্রী ও ৩ জন মোয়াল্লেম নেয়া যাবে।  বেসরকারি হজযাত্রীদের কোরবানীর টাকা কুপনের মাধ্যমে সৌদি আরবে ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকে জমা দিতে হবে। মন্ত্রীপরিষদ সচিব বলেন, হজব্রত পালনে অনলাইনে প্রথমে প্রাক-নিবন্ধন করতে হবে, যা সেন্টাল এনআইডি ডাটাবেজে সংরক্ষিত থাকবে এবং এরপর হজযাত্রী আইডি পেতে তাদের নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। নিবন্ধন ২ বছর পর্যন্ত বহাল থাকবে। এবার পুলিশ ভেরিফিকেশনের প্রয়োজন হবে না কারণ পাসপোর্ট ইস্যুর সময়েই ওই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়।  প্রবাসী বাংলাদেশীরা এনআইডি’র পরিবর্তে তাদের পাসপোর্ট ব্যবহার করে প্রাক-নিবন্ধন করতে পারবেন।

কালেরকথা/বিডি

মন্তব্য করুন

Logo

সম্পাদক: মাসুম বিল্লাহ কাওছারী

সিডরো মিডিয়া গ্রুপ অব পাবলিকেশন্স লিঃ-এর পক্ষে রিনা দাশ কর্তৃক উত্তরা রেসিডেন্সিয়াল এলাকা ঢাকা থেকে প্রকাশিত

 01701703442   ||   info@dailykalerkotha.com